মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০২:০৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কাঠালিয়ায় অসচেতনতায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু

কাঠালিয়ায় অসচেতনতায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু

বার্তা ডেস্ক:

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় অসচেতনতা ও চিকিৎসা গ্রহণে অনিহার কারণে হতদরিদ্র পরিবারের শাহনাজ বেগম (৩০) নামে এক প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে। একটি ফুটফুটে শিশু কন্যা সন্তানের জন্মের পরপরই মা শাহনাজ বেগম মৃত্যুও কোলে ঢলে পড়েন। মর্মান্তিক এ মৃত্যুতে এলাকায় চলছে শোকের মাতম। শুক্রবার সকালে উপজেলা সদরের পশ্চিম আউরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত শাহনাজ বেগম উপজেলা সদরের পশ্চিম আউরা গ্রামের দরিদ্র কৃষক মো. হারুন হাওলাদারের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী।

স্বজন ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার সকালে শাহনাজ বেগম পেটে সামান্য ব্যাথা অনুভব হলে স্বামী হারুন হাওলাদার তাকে হাসপাতালে নেয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু স্ত্রী শাহানাজ বেগম গ্যাসষ্ট্রিকের ব্যাথা হয়েছে বলে হাসপাতালে যেতে রাজী হননি। স্বামী হারুন কাজের জন্য বাইরে গেলে ঘরে কেউ না থাকায় শাহানাজ বেগম একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এ সময় তার ডাক-চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন এবং স্বামীকে খবর দেন। স্বামী বাড়ি এসে আশংকাজনক অবস্থায় শাহনাজ বেগমকে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

বাড়ির একাধিক মহিলারা জানান, শাহনাজ বেগম গর্ভবর্তী হওয়ার পর থেকে সে লুকিয়ে লুকিয়ে থাকতো। কারো কাছে কখনও কিছু বলেনি। বাড়ির কেউই জানতাম না যে, সে মা হয়েছেন। তার অবহেলা ও তথ্য গোপন রাখার কারণেই সে আজ মারা গেলো। তারা জানান, এ নবজাতক ছাড়াও তার তিন বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

তবে চিকিৎসকদের ধারনা,  সন্তান প্রসাবকালে প্রসূতি মায়ের কাছে কোন লোক বা দায়ী না থাকায় আমবেলিকালকটটি প্রসূতি মা নিজের হাতেই ছিঁড়ে ফেলেন। যে কারণে পরবর্তীতে গর্ভফুল না পড়ায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শাহনাজ বেগমের মৃত্যু ঘটে।

 

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







All rights reserved@KathaliaBarta-2021
Design By Rana