শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৬:৪৬ অপরাহ্ন

সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলতে চালের দাম বাড়ানো হয়েছে

সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলতে চালের দাম বাড়ানো হয়েছে

সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলতে চালের দাম বাড়ানো হয়েছে

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ

নতুন নির্বচিত সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলতেই অযৌক্তিক ভাবে চালের দাম বাড়ানো হয়েছে। যারা এটি করছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এইচ এম শফিকুজ্জামান।

তিনি বলেন, হঠাৎ করে ডিসেম্বরের পরে চালের দাম বেড়ে গেছে। এটি উত্তর অঞ্চলের মিলগুলো থেকে করা হয়েছে। মিল মালিকরা বলতে চাইছেন ধানের দাম বেড়ে যাওয়া তারা এটি করেছে। তবে ধানের দাম বাড়লেও সেই ধানের চাল বাজারে আসার কথা বৈশাখ মাসে। কিন্তু একটি অসাধু চক্র এর আগেই দাম বাড়িয়েছেন। এখন বাজারে যে চাল পাওয়া যাচ্ছে তা তিন মাস আগের চাল। রমজানের আগেই মজুদদারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রমজানে সবগুলো পণ্যেরই চাহিদা দ্বিগুন বেড়ে যায়। এ সুযোগে মজুদদুারীরা সুবিধা ভোগ করে। ভোক্তা অধিকার মজুদদারীদের বিরুদ্ধে এবার কঠোর ব্যবস্থা নিবে। ভোক্তাদের কাছে পরামর্শ হচ্ছে, একসাথে পণ্য না কিনে ধাপে ধাপে কিনলে বাজারটা অস্থির হবে না।

সোমবার (২৯ জানুয়ারি) সকালে ঝালকাঠিতে বাজার নিয়ন্ত্রণে অভিযান পরিচালনা করেছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। তিনি শহরের বড় বাজার ও কাঠপট্টি এলাকায় কয়েকটি চাল এবং ভোজ্যতেলসহ নিত্যপণ্যের দোকান মনিটরিং শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এসময় জেলা প্রশাসক ফারাহ গুল নিঝুমসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ এইচ এম শফিকুজ্জামান বলেন, রোজায় সাধারণত কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়ে যায়। এজন্য চাল, ডাল, তেল, ছোলা, চিনি, খেজুরের পর্যাপ্ত মজুদ রাখা হয়েছে। এসব পণ্য যাতে কেউ মজুদ করতে না পারে সে ব্যাপারে আমরা ব্যবস্থার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি। এজন্য অভিযানের ধরন পরিবর্তন করা হয়েছে। আমরা খুচরা বাজার থেকে তথ্য নিয়ে মূল জায়গায় ব্যবস্থা নিতে চাই।

অভিযান শেষে জেলার চেম্বার অফ কমার্সের সভা কক্ষে চাল, ভোজ্য তেল ও প্রয়োজনীয় পণ্যর মূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে ব্যবসায়ী প্রতিনিধি ও অংশীজনের সংঙ্গে মতবিনিময় সভা করবেন তিনি। পরে তিনি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন ভোক্তা অধিকারের পরিচালক ফকির মোহাম্মদ মুনাওয়ার, বিভাগীয় উপপরিচালক অপূর্ব অধিকারী, ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক ফারাহ গুল নিঝুম ও ঝালকাঠি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সাফিয়া সুলতানা।

 

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







All rights reserved@KathaliaBarta 2023
Design By Rana