এখন সময় :
,
kathaliabarta.com

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ঝালকাঠিতে পাটিকর কারিগররা বিপাকে

বিশেষ প্রতিনিধি:

ঝালকাঠিতে বিক্রির মৌসুম হওয়া সত্বেও করোনা ভাইরাসের প্রভাবে তৈরিকৃত শীতলপাটি বিক্রয় করতে পারছেনা সনাতন ধর্মলম্বি পাটিকর কারিগরা । জেলার নলছিটি উপজেলার গোপালপুর ও কামদেবপুর গ্রামের প্রায় ১০০টি পরিবার জীবিকা নির্বাহ করে থাকে মুর্তা (পাটি বেত) দিয়ে তৈরি কৃত শীতলপাটি বিক্রি করে । বছরে ফাল্গুন মাস হতে জ্যৈষ্ঠ মাস পর্যন্ত গরম কাল হওয়ায় পাটির চাহিদা বেশি থাকে । কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারনে শীতলপাটি বেচাঁ বিক্রি খুবিই কম ।

করোনা ভাইরাসের ভয়ে খুচরা ও পাইকাররা আসতে পারছেনা পাটি ক্রয় করতে । করোনার প্রভাবে বাজার প্রায় শূন্যের কোঠায় । শীতলপাটি ঝালকাঠি জেলা গন্ডি পেরিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি হচ্ছে এখানকার তৈরিকৃত শীতলপাটি। । বংশ পরম্পরায় চলে আসায় পাটিকর কারিগরা অন্য পেশায় যেতে পারছেনা । তাদের একমাত্র আয়ের উৎস হচ্ছে পাটি তৈরি করে বিক্রি করা । এ দিয়ে যা আয় হয় কোন মতে সংসার চালায় এবং বাচ্চাদের লেখা পড়া পিছনে খরচ করে থাকে সেই অর্থ।
বাজারে এ দুরঅবস্থার কারনে পাটিকর পরিবার গুলো দূরচিন্তায় দিন কাটাচ্ছে । কি ভাবে সংসার চালাবে ।

 

এমনিতেই বর্তমানে প্লাস্টিকের তৈরি পাটি বাজারে ছয়লাভ হওয়ায় । গ্রামিন ঐতিহ্যবাহী শীতলপাটি বাজার হারিয়ে ফেলছে । দিন দিন বাজার থেকে হারিয়ে যেতে বসছে শীতলপাটির চাহিদা ।

তপনও বিজয় পাটিকর বলেন সরকারি সহযোগিতায় অল্প সুধে ঋণ পেলে এবং সরকার বাজারজাত করনের উদ্যোগ গ্রহন করলে গ্রামিন ঐতিহ্যবাহী শীতল পাটির বাজার আবার ফিরে পাওয়া যাবে ।
সুবিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মান্নান সিকদার বলেন শীতল পাটির আগেরমত বাজারে চাহিদা না থাকায় পাটিকরা এমনিতেই মানবেতর জীবন যাপন করছে ,করোনা ভাইরাসের কারনে তারা আরো খতির মধ্যে পড়বে । আমাদের ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যতদুর সম্ভব তাদেরকে সাহায্য সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো ।

নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদার বলেন প্রতিটি জেলারই কোন না কোন ব্রান্ডিং পণ্য থাকে । ঝালকাঠি জেলায় শীতল পাটি ও পেয়ারা ফলকে জেলার ব্রান্ডিং পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে । আমাদের পক্ষ থেকে পাটিকরদের প্রতি যতটা সার্বিক সহযোগিতা করা সম্ভব তা নলছিটি উপজেলা প্রশাসন করবে ।

 

 

Share Button
Print Friendly, PDF & Email
নোটিশ :   কাঠালিয়া বার্তার প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি - সম্পাদক
সম্পাদক ও প্রকাশক: মোঃ শহীদুল আলম, নির্বাহী সম্পাদক: মোহাম্মদ আবদুল হালিম
বার্তা সম্পাদক: মোঃ সাকিবুজ্জামান সবুর
সম্পাদকীয় কার্যলয়: কাঠালিয়া বার্তা, কলেজ রোড, কাঠালিয়া, ঝালকাঠি।
ইমেল: kathaliabarta@gmail.com, মুঠোফোন: ০১৭১২৫২৯২৬৬, ০১৭৭৪৯৩৭৭৫৫