মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:১৪ অপরাহ্ন

কাঠালিয়ায় ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে প্রায় ৭ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

সাকিবুজ্জামান সবুর:

ঘুর্ণিঝড় বুলবুল’র আঘাতে লন্ডপন্ড দূর্যোগ প্রবণ ও বিষখালী নদী তীরবর্তী ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার জনপদ। সরকারি ও বেসরকারি প্রাথমিক পরিসংখ্যানে জেলার ৪টি উপজেলার মধ্যে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় কাঠালিয়া। বেড়িবাধ ও ঘরবাড়ি বিধ্বস্তসহ ফসলহানিতে প্রায় ৭ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। ঘর বিধ্বস্ত হওয়ায় খোলা আকাশের নিচে বাস করছেন অসহায় অনেক পরিবার।

 

 

আড়াই লক্ষাধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত কাঠালিয়া উপজেলার এক-তৃতাংশ এলাকা বিষখালী নদী বেষ্টিত। এখানকার সিংহভাগ মানুষের জীবিকা কৃষি ও মৎস্য নির্ভর। নদীর তীরবর্তী ২৬ কিলোমিটার এলাকায় টেকসই বেড়িবাধ না থাকায় জোয়ারের পানি বৃদ্ধি বা প্রাকৃতিক দূর্যোগে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। পানিবন্দী হয়ে পড়ে শতশত পরিবার। প্রাণহাণি ঘটে মানুষ ও গবাদি পশুসহ জীবজন্তুর। ক্ষতিগ্রস্থ হয় ঘর-বাড়ি, ফসলী খেত, রাস্তা-ঘাট ও বাগানবাড়ির। প্রলংকারী সিডরে সবকিছু হারিয়ে বিগত একযুগেও এর ক্ষত কাটিয়ে ওঠতে পারেনি কাঠালিয়াবাসী। এরপর আয়লা ও মহসেনের পরবর্তী ১০ নম্বর মহা বিপদ সংকেতের ঘুর্ণিঝড় বুলবুলে আঘাতে পাল্টে দিয়ে গেল কাঠালিয়ার চিত্রপট। বুলবুলের প্রভাবে ভারি বর্ষণ, দমকা হাওয়া ও নদীর পাণি স্বাভাবিকের চেয়ে ৫/৭ ফুট বৃদ্ধির কারণে ৫টিলোমিটার বেড়িবাধ ভেঙ্গে পানি ভিতরে প্রবেশ করে ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়। এছাড়া গাছ উপরে পরে দুই শতাধিক বসত ঘর ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিধ্বস্ত, অসংখ্য মাছের ঘের, ধান-পান-কলা ও ফসলের ক্ষেত, কাঁচা রাস্তাঘাট ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।  ক্ষতিগ্রস্থদের অধিকাংশই নিম্ন আয়ের মানুষ। এরা দিন আনে দিন খায়। মাথা ঘোজার ঠাইটুকু হারিয়ে এক খোলা আকাশের নিতে বা অন্যের বারিন্দায় রাত কাটাচ্ছেন।

 

 

কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আকন্দ মোহম্মদ ফয়সাল উদ্দীন বলেন, ব্যাপক প্রচারণোর কারণে বুলবুল’র আঘাতে কাাঠালিয়ায় কোন প্রাণহাণি ঘটেনি। তবে গাছ উপরে পরে দুইশত বসত ঘর বিধ্বস্ত, পাঁচ কিলোমিটার এলাকার বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া ১৭৭টি মাছের ঘের ও পুকুর, ৯০ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা, ২৮৭ একর জমির ধান, পান, কলা ও সবজি ফসল এবং ৩০ লক্ষা টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির গাছ উপড়ে ও ভেঙ্গে ক্ষতি হয়েছে। এতে প্রায় সাত কোটি টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।




Share Button
Print Friendly, PDF & Email





পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2020
Design By Rana